হেরা পাহাড়, যেখানে ধ্যানমগ্ন থাকতেন প্রিয় নবী (সাঃ)

জাবালে নুর নামে পরিচিত হেরা পাহাড় পবিত্র মক্কা নগরীর একটি ঐতিহাসিক স্থান। মসজিদুল হারামের উত্তর-পূর্ব দিকে অবস্থিত এ পাহাড় ৬৪২ মিটার উঁচু। পাহাড়ের চূড়ায় বিখ্যাত হেরা গুহা অবস্থিত। নবুয়ত প্রাপ্তির আগে প্রিয় নবী (সাঃ) এ গুহায় আল্লাহর ইবাদত করতেন। গুহার নিরিবিলি পরিবেশে ধ্যানমগ্ন থাকতেন তিনি। মহানবী (সাঃ) এই গুহায় অবস্থানকালীন সময়েই সর্বপ্রথম সরাসরি ওহি বা আল্লাহর প্রত্যাদেশ লাভ করেন। ফেরেশতা জিবরাইল (আঃ) এসে রাসুলকে (সাঃ) বলেন, ‘পড়ুন।’ রাসুল (সাঃ) বললেন, ‘আমি পড়তে জানি না।’ জিবরাইল (আঃ) নবী করিম (সাঃ)-কে আলিঙ্গন করে পুনরায় বলেন, ‘পড়ুন।’

এভাবে তিন বার ফেরেশতা জিবরাইল (আঃ) তাকে আলিঙ্গন করেন। এরপর নবী করিম (সাঃ) পড়তে শুরু করলেন। সুরা আলাকের প্রথম পাঁচ আয়াত সেদিন অবতীর্ণ হয়। হেরা পাহাড় ঘিরে নবীজির অনেক স্মৃতি রয়েছে। একবার নবীজি কয়েকজন সঙ্গীসহ এ পাহাড়ে আরোহণ করেন। তখন পাহাড়টি কাঁপতে শুরু করে। মহানবী (সাঃ) তখন বলেন, ‘শান্ত হও হে হেরা, তোমার ওপর একজন নবী, একজন সিদ্দিক ও একজন শহীদ অবস্থান করছেন।’ (মুসলিম, হাদিস: ২৪১৭) হেরা গুহায় পৌঁছানো কষ্টসাধ্য ব্যাপার। তবুও প্রিয় নবীর স্মৃতিধন্য হওয়ায় হজযাত্রী-পর্যটকদের কাছে এটি একটি প্রিয় স্থান।